• শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৫০ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

বাংলাদেশে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় সহায়তা করবে ব্রিটেন

ডেস্ক নিউজ
আপডেট : বুধবার, ২৫ আগস্ট, ২০২১

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় চিকিৎসা বর্জ্যসহ সার্বিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে পরিবেশ সংরক্ষণ, নবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহার, জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এবং কারিগরি ও গবেষণা ক্ষেত্রে ব্রিটেন বাংলাদেশকে প্রয়োজনীয় সহায়তা করবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন।

বুধবার (২৫ আগস্ট) চ্যাটারটনের নেতৃত্বে ব্রিটিশ হাইকমিশনের একটি প্রতিনিধিদল পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিনের সঙ্গে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাক্ষাৎকালে এসব কথা বলেন তিনি।

বাংলাদেশ ব্রিটেনের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ মিত্র উল্লেখ করে ব্রিটিশ হাইকমিশনার বলেন, ‘ব্রিটেনের চলমান সহযোগিতা ক্রমবর্ধমান গতিতে অব্যাহত থাকবে।’

পরিবেশমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিন ব্রিটিশ হাইকমিশনারকে জানান, বাংলাদেশ ক্লাইমেট ভালনারিবিলিটি ফোরাম ও ভালনারেবল-২০-এর সভাপতি হিসেবে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। সামগ্রিক সমৃদ্ধির লক্ষ্যে বাংলাদেশ মুজিব ক্লাইমেট প্রোসপারিটি প্ল্যান ঘোষণা করেছে।

মন্ত্রী আরও জানান, বাংলাদেশ ন্যাশনালি ডিটারমাইন্ড কন্ট্রিবিউশান (এনডিসি) চূড়ান্ত করে ৩১ আগস্টের আগে ইউএনএফসিসিতে জমা দেবে। এছাড়াও সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনা করে ন্যাশনাল এডাপটেশন প্ল্যান (এনএপি) প্রণয়নের কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে।

এসময় মন্ত্রী ব্রিটেনের আয়োজনে আগামী নভেম্বর মাসে যুক্তরাজ্যের গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিতব্য জাতিসংঘ জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনের সফলতা কামনা করেন। এছাড়া জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ঝুঁকিপূর্ণ দরিদ্র দেশগুলোতে ধনী দেশগুলোর প্রতিশ্রুত বার্ষিক ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রদানসহ প্যারিস জলবায়ু চুক্তির অন্যান্য বিষয়ে বিশ্বনেতারা ঐকমত্যে পৌঁছাবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন। এসময় জলবায়ু পরিবর্তন সংশ্লিষ্ট সব ক্ষেত্রে ব্রিটেনের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোস্তফা কামাল, অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন) ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন, অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) আহমদ শামীম আল রাজী, অতিরিক্ত সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) মো. মিজানুল হক চৌধুরী, যুগ্ম-সচিব (জলবায়ু পরিবর্তন) সঞ্জয় কুমার ভৌমিক এবং ব্রিটিশ হাইকমিশনের জলবায়ু ও পরিবেশ প্রোগ্রামের প্রধান জন ওয়ারবার্টনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ