• শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৪৫ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

পোকখালীতে ছেলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ মা-বাবা, ছোট ভাইয়ের লাশ গুমের হুমকি!

সংবাদদাতা
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১

কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার পোকখালী ইউনিয়নের আজিজুল হক রুবেল নামের এক সন্তানের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে ঘর ছাড়ার উপক্রম হয়েছে স্বয়ং জন্মদাতা পিতা- মাতার। অব্যাহত নির্যাতনের পাশাপাশি ছোট ভাইকে হত্যা করে লাশ গুমের হুমকি দেওয়ায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন এ পরিবারটি। প্রশাসনের দ্বারস্থ হলে নির্যাতন -নিপিড়নের মাত্রা আরো বাড়িয়ে দেয় রুবেল গং । ঘটনাটি ঘটে ৫,৬,৭,৯ সেপ্টেম্বর পৃথক সময়ে ইউনিয়নের পূর্ব পোকখালী দক্ষিণ পাড়া এলাকার নুরুল ইসলামের বসত ঘরে। এ ঘটনায় মা নুর আয়েশা বাদী হয়ে ছেলে আজিজুল হক রুবেল,ভাশুর সুজা আলমের ছেলে ইসমাইল এবং তার স্ত্রী তসলিমা আক্তারের বিরুদ্ধে ঈদগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্তরা দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র গালিগালাজ, উস্কানিমূলক কথা বলে হামলা করতে এগিয়ে আসে। একাধিক বার তাদের হামলায় আহত হয়েছে মা বাবা ভাই বোন। আইনের আশ্রয় নিতে চাইলে ছোট ভাই আরমানকে হত্যা করে লাশ গুমের হুমকি দেয় রুবেল। মা নুর আয়েশা জানায়, গত ৫ সেপ্টেম্বর তাদের বসতভিটার গাছ থেকে নারকেল নামাতে চাইলে অভিযুক্তরা বাঁধা সৃষ্টি করে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে। এরপর দিন তাদের চলাচলের রাস্তায় গর্ত খুঁড়ে দেয় এবং পুকুরে ইট, বোতল ভাঙা, ময়লা আবর্জনা নিক্ষেপ করে ব্যবহার অনুপযোগী ও মাছ মেরে ফেলে। এরপর দিন ২শতাধিক রোপণকৃত চারা কেটে দেয়। খবর পেয়ে এগিয়ে এসে বাঁধা প্রদান করলে তাদের উপর হামলা করতে মরিয়া হয়ে উঠলে শোর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাদের রক্ষা করে।এ ঘটনায় স্থানীয় ভাবে একাধিক বার শালিসি বৈঠকের আয়োজন করলেও অভিযুক্তরা উপস্থিত হয় না। স্থানীয় ভাবে সমাজপতিদের কাছে নালিশ করলে ক্ষুব্ধ হয়ে পূনরায় ৯ সেপ্টেম্বর সকালে নুর আয়েশার ছোট ছেলে আরমানকে ধরে উপর্যপুরী মারধর করে রুবেল, ইসমাইলরা। জানের ভয়ে আরমান হামলা থেকে বাঁচতে দ্রুত বাসায় ঢুকে গেলে হামলাকারীরা বাসায় গিয়ে আরেক দফা হামলা করার চেষ্টা চালায়।

এদিন আরমানকে ফের হামলা করতে না পেরে বাড়ির বেড়া ও নলকূপের লাইন কেটে দেয়। নিজ ছেলে এবং ভাসুরের ছেলে, পুত্রবধূর ননস্টপ অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে ঈদগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে মা নুর আয়েশা। অভিযোগ পেয়ে ঈদগাঁও থানার এস,আই শামিম আল মামুন ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পান ঘটনাটি জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ বিধায় বিজ্ঞ আদালতে যেতে বলা হয়েছিল। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মানবিক বিবেচনায় পুলিশ
উভয় পক্ষের সাথে ১৫ বারের মতো কথা বলেছে , কোনো পক্ষই আইন মানে না। এর আগেরকার পুলিশও তাদের ঘটনাটি মিমাংসা করার চেষ্টা করেছিল কিন্তু কোন পক্ষ রায় মানতে চায় না। তবে নুর আয়েশার পরিবারকে ঘরে আটকে রেখেছে মর্মে জাতীয় জরুরি সেবার নম্বরে কল করলে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পায় অভিযুক্ত আজিজুল হক রুবেল পরিষদে ভ্যাকসিন নিতে গেছে। তবে নলকূপের লাইন কেটে দেওয়ার বিষয়টি সত্য বলে জানান পুলিশের এ কর্মকর্তা। এদিকে অভিযুক্ত আজিজুল হক রুবেলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সত্য নয় দাবী করে বলেন, এসব তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র। পিতা মাতাকে ব্যবহার করে এলাকার কুচক্রী মহল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা চালাচ্ছে। জেঠাত ভাই ইসমাঈলের জমি জমা নিয়ে ঝামেলা, সেখানে আমি কেনো হস্তক্ষেপ করবো? তাছাড়া মা বাবা দুইজনই মানসিক ভারসাম্যহীন বলে উল্লেখ করেন ছেলে রুবেল।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ