• সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৩৬ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

এমপির ছেলে দু’বারের উপজেলা চেয়ারম্যান এখন পাঠাও’ চালক

Office Room
আপডেট : মঙ্গলবার, ১ অক্টোবর, ২০১৯

 

জসীম উদ্দীন,

দেশের অসংখ্য জনপ্রতিনিধি যখন নীতি নৈতিকতা হারিয়ে জনগণের হক লুঠ করে কাঁড়ি কাঁড়ি টাকার মালিক।ঘুরে বেড়ান দামি গাড়িতে থাকেন বিলাসবহুল বাড়িতে।ঠিক সে জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে একজন ব্যাতিক্রম জনপ্রতিনিধির সন্ধান মিলেছে।

যিনি বর্তমানে জীবিকার তাগিতে পাঠাও চালক।এ্যাপস ভিত্তিক শেয়ারিং রাইড শেয়ারের মাধ্যমে রুজিরোজগার করছেন।
তার নাম শেফায়েত আজিজ রাজু। তিনি কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার দু’বারের নির্বাচিত সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এবং তার পিতা মাহমদুল করিম চৌং তিনি একজন সাবেক সাংসদ ।রাজু বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তাই গেলবার তার দল নির্বাচনে না আসায়, তিনিও নির্বাচন অংশ গ্রহণ করেননি।

বর্তমানে রাজু চট্টগ্রাম শহরের অলি-গলিতে রাইড শেয়ারিং অ্যাপসের মাধ্যমে মোটরসাইকেলে পরিবহন সেবা দিয়ে উপার্জনে ব্যাস্ত। তিনি সোমবার ৩০সেপ্টেম্বর তার বর্তমান পেশা নিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিলে, তা মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায়।

তার এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায়,দলমল নির্বিশেষ আকাশ চুম্বী জনপ্রিয়তা রাজুর। এমন কি অন্যান্য রাজনীতির দলের লোকজনের কাছেও তিনি সততার বরপুত্র এবং ভালো মানুষ। তিনি উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালীন কোন দলের নয়, জনগণের প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন বলে সেখানকার লোকজন জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে শেফায়েত আজিজ রাজু সঙ্গে খোলামেলা কথা হয় এ প্রতিবেদকের সঙ্গে। তিনি বলেন,কয়েক বছর বেকার থাকার পর কোন চাকরি না পেয়ে সৎভাবে জীবিকার উপার্জনের জন্য তার এই পেশায় আসা। তিনি বলেন,জনপ্রতিনিধি একটা অলাভজনক পদ।এটি শুধু মাত্র জনগণের সেবা করে সম্মান পাওয়া যায়। এ পদবী আয় করার জন্য নয়, যদি না কেউ এটিকে অসৎভাবে ব্যবহার না করেন।

তিনি বলেন, আমি যখন ১০উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলাম আমাকে পরিষদ থেকে সম্মানি গাড়ি ও বাসা ভাড়া দেয়া হতো। এ দিয়ে আমার সুন্দর মতো চলতো। তবে এবার নির্বাচন না করায় গত কয়েকবছর যাবত বেকার।আমার ব্যবসা করার মত কোন পূঁজি নেই, তাই অনেকের কাছে একটি চাকরির জন্য ধন্যা দিয়েছি কোন লাভ হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে এ পেশায় আসা। তার মতে পেশা যতই ছোট হোক সৎ হলে যে কোন পেশায়ই সম্মানের।

তার আশা তাকে এ্যাপস ভিত্তিক শেয়ারিং রাইড এর পেশায় দেখে দেশের লাখো বেকার যুবকদের লজ্জা ভাঙবে এবং বেকার পথভ্রষ্ট না হয়ে এ পেশা কিংবা অন্য যে কোনো পেশায় আসবে।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ
February 2023
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031