• বুধবার, ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:৫৯ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English

ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার

Office Room
আপডেট : রবিবার, ১৬ জুন, ২০১৯

নিউজ ডেস্ক : পরোয়ানা জারির ২০ দিনের মাথায় ফেনীর সোনাগাজী থানার সাবেক ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোয়াজ্জেম হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রোববার রাজধানীর শাহবাগ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় বলে পুলিশের রমনা জোনের ডিসি মারুফ হোসেন সমকালকে নিশ্চিত করেছেন।

নুসরাত হত্যার ঘটনায় ব্যাপক সমালোচিত মোয়াজ্জেমকে গত ১০ এপ্রিল সোনাগাজী থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়। পরে ৮ মে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করে রংপুর রেঞ্জে সংযুক্ত করা হয়।

এ সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করেন রংপুরের মানুষ। বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্য দিয়ে মোয়াজ্জেমকে রংপুর রেঞ্জ থেকে প্রত্যাহারের দাবি জানায় স্থানীয় নানা সংগঠন।

এরপর জরুরি তলব পেয়ে মোয়াজ্জেম রংপুর থেকে ঢাকায় যান। রংপুর রেঞ্জের একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা সূত্রে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। তবে সেবার ঢাকায় যাওয়ার পর মোয়াজ্জেম আর রংপুরে ফিরে যাননি।

এর আগে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাতের জবানবন্দির ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়ানোর ঘটনায় মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় পরোয়ানা জারির পর তিনি হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন।

মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানাটি জারি করেন ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল। আগামী ১৭ জুন পরোয়ানা তামিল-সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য তদন্তকারী কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানায় আসা নুসরাতের বক্তব্য নিজ মোবাইল ফোনে ধারণ করেন ওসি।

পিবিআইর তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়, গত ২৭ মার্চ সোনাগাজী থানার সাবেক ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন নিজের মুঠোফোনে নুসরাতের বক্তব্য ধারণ করেন। এতে নির্যাতনের শিকার মেয়েটির ব্যক্তিগত পরিচিতি প্রকাশ পেয়েছে। এর ফলে মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৬ ধারার অপরাধ প্রমাণিত হয়েছে।

এতে বলা হয়, মোয়াজ্জেম ওই ভিডিও ৮ এপ্রিল শেয়ারইট অ্যাপের মাধ্যমে ‘সজল’ নামের একটি ডিভাইসে পাঠান। এতে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৯ ধারার অপরাধ প্রমাণিত হয়েছে।

পিবিআইর প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ায় সামাজিক অস্থিরতার সৃষ্টি ও আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটার উপক্রম হয়। এর মাধ্যমে মোয়াজ্জেম ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ৩১ ধারায় অপরাধ করেছেন।


আরো বিভন্ন বিভাগের নিউজ
February 2023
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031